Applicant will have different Choice to apply – www.ntrca.gov.bd

Applicant will have different Choice to apply – www.ntrca.gov.bd

Applicant will have different Choice to apply. The applicant can apply to a different institution. As the NTRCA has declared that an applicant can apply to a different institution for their recruitment. In addition, to stop corruption in recruiting teacher The NTRCA has decided this. So it is a good news for all the job seeker as Applicant can apply to a different institution. If you want to know the latest news on NTRCA. You are in the right place. During this time Applicant will have different Choice to apply has published officially on their site. If you are looking for Applicant will have different Choice to apply. You Are in the right place. Because we also publish this job circular on our site www.jobbd.net. So you can apply for this job circular. First, read this whole job circular carefully. Check Your eligibility to apply for this job. First.

Applicant will have different Choice to apply

 

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি-অনিয়ম ঠেকাতে ২০১৫ সালের নভেম্বরে একটি পরিপত্রের মাধ্যমে গভর্নিং বডির মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম বন্ধ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এরপর ২০১৬ সালে সারাদেশে শূন্যপদের তালিকা সংগ্রহ করে কেন্দ্রীয়ভাবে শিক্ষক নিয়োগের জন্য গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে এনটিআরসিএ। বিজ্ঞপ্তির পরিপ্রেক্ষিতে নিবন্ধনধারী চাকরিপ্রার্থীরা নিয়োগ পেতে অনলাইনে আবেদন করেন। একজন চাকরিপ্রার্থী ইচ্ছেমতো (যত ইচ্ছে তত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে) আবেদন করতে পেরেছেন। আর আবেদনের ফল প্রকাশের ক্ষেত্রে হাজার হাজার প্রার্থী বিপত্তির শিকার হয়েছেন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই কোনো প্রার্থী একাধিকয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আবেদন করে কোথাও নিয়োগের সুযোগ পাননি। কিন্তু অনেক চাকরিপ্রার্থী ১০টিরও বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছিলেন। একাধিক প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হলেও তারা মাত্র একটিতেই যোগদান করেছিলেন।

এমন অব্যবস্থাপনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকদের পদ শূন্য থাকলেও বেকাররা এ ক্ষেত্রে নিয়োগের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছিলেন। এনটিআরসিএর এমন নিয়োগবিধির কারণে ২০১৬ সালে একদিকে যেমন কপাল পুড়েছে চাকরি না পেয়ে হন্যে হওয়া লক্ষাধিক বেকারের, তেমনি এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষকেও পড়তে হয়েছিল বিপাকে। এক নিয়োগ সম্পন্ন করতেই তাদের দফায় দফায় আবেদনের সুযোগ দিতে হয়েছে।

NTRCA সর্বশেষ খবর পেতে যোগদিন আমাদের Facebook Group 

 

চাকরিপ্রার্থী একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চয়েস দিতে পারবেন

 

নিয়োগ প্রক্রিয়ায় নানা অসঙ্গতি দেখিয়ে চাকরিপ্রার্থীরা দফায় দফায় হাই কোর্টে রিট করেছিলেন। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এনটিআরসিএর নতুন নিয়োগ প্রক্রিয়ায় এমন কোনো বিপত্তি দেখা দেবে না এমনটাই মনে করছে কর্তৃপক্ষের।

এনটিআরসিএ চেয়ারম্যান এএমএম আজহার বলেন, প্রথমবার কেন্দ্রীয় পদ্ধতিতে নিয়োগ দিতে গিয়ে বেশ কিছু সমস্যা দেখা গিয়েছিল। এবার সেগুলো শুধরে নেয়া হচ্ছে। আশা করছি, ভবিষ্যতে চাকরিপ্রার্থীদের আগের মতো সমস্যায় পড়তে হবে না।

তিনি বলেন, মোবাইল অপারেটর টেলিটকের মাধ্যমে শিগগিরই আবেদনের জন্য গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে। একজন চাকরিপ্রার্থী নিয়োগের ক্ষেত্রে পিএসসির আদলে একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চয়েস দিতে পারবেন। তবে ফলাফলে তাকে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই নিয়োগের জন্য মনোনীত করা হবে। ফলে প্রার্থীদের হতাশার কিছু নেই। একটি সফটওয়্যারের মাধ্যমে ডিজিটালাইজড পদ্ধতিতে সম্পূর্ণ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে বলেও তিনি জানান।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সারা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বর্তমানে শিক্ষকদের শূন্য পদের তালিকা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এ তালিকা ধরেই জারি করা হবে শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি।

শূন্য আসনের তালিকা তৈরির কাজ শুরু করেছে এনটিআরসিএ

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা ৩৫ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে। যোগদানের জন্য সর্বোচ্চ ৩৫ বছর বয়সের পর কেউ আর শিক্ষক হতে পারবেন না। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশনা বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) অফিসে পাঠানো হয়েছে।

এরপরই মূলত শূন্য আসনের তালিকা তৈরির কাজ শুরু করেছে এনটিআরসিএ। এনটিআরসিএর সদস্য মো. হুমায়ন কবির গণমাধ্যমকে বলেন, শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা নির্ধারণ সংক্রান্ত নির্দেশনা ইতোমধ্যে আমরা পেয়েছি। শূন্য আসনে তালিকা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। ঈদের পরপরই ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হতে পারে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, আদালতের নির্দেশে এনটিআরসিএ থেকে বেসরকরি শিক্ষকদের চাকরিতে যোগদানের বয়সসীমা নির্ধারণ করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আবেদন করা হয়। এর প্রেক্ষিতে গত ৩ জুন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপত্বিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে একটি সভা হয়। সভায় এনটিআরসিএর দেয়া প্রস্তাবনা অনুযায়ী বেসকারি শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে ৩৫ বছর করার পক্ষে মত দেয়া হয়। সেই মতামতের প্রেক্ষিতে গত শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, আদালতের নির্দেশনা ও এমপিও নীতিমালার আলোকে বেসরকারি শিক্ষকদের যোগদানের বয়স ৩৫ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে। এর আলোকে শূন্য আসনে নিবন্ধিত প্রার্থীদের তালিকা প্রণয়ন করতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিতে বয়সসীমার বিষয়টি উল্লেখ করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

 

In addition, all the candidates will call for recruitment assessment. Any kind of persuasion in the recruitment process will lead to disqualification of candidature. First, NTRCA authority reserves the right to accept or reject any or all of the applications without assigning any reason whatsoever. ‍So, visit us regularly. As we publish regular job updates on our site. In addition, you can bookmark this site too. Moreover, you can share this post. So your friends can have it.

NTRCA Vacant Post 2018

Recently, NTRCA Vacant list 2018 was published. If you want to see the school and colleges vacant list. See the link. To Get the latest updates on the regular job like Our FACEBOOK PAGE. and also Join our public FACEBOOK GROUP.

Share this post